New Rules On ATM Card Usage :এটিএম কার্ড ব্যবহার তো করেন ,জেনে নিন এটিএম কার্ড ব্যাবহারের সরকারের নতুন নিয়ম 

আমরা এখনকার দিনে সবাই ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড এর মাধ্যমেই কেনাকাটা করে থাকি। এছাড়াও অনলাইন শপিং এর ক্ষেত্রেও আমরা ডেবিট(Debit Card) এবং ক্রেডিট কার্ড(Credit Card) ব্যবহার করে থাকি। তাহলে এই খবরটি ভালো করে শুনে নিন। রিসার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া(Reserve Bank of India) র তরফ থেকে ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড সংক্রান্ত নতুন নিয়ম শুরু হচ্ছে। আগে এই নিয়ম ১লা জানুয়ারী থেকেই শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু কিছু কারণের জন্য এই নয়া নিয়ম চালু হবে ১লা জুলাই থেকে। 

কি আছে এই নতুন নিয়মে?

এই নতুন নিয়মের নাম হলো কার্ড টোকেনাইজেশন(Card-Tokenaisation)। এই কার্ড টোকেনাইজেশন এই নিয়মের ফলে বিভিন্ন ব্যাবসায়িক ওয়েবসাইট এবং পেমেন্ট গেটওয়ে গ্রাহকদের কার্ড সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য আর সেভ রাখতে পারবেন না।

উদাহরণস্বরূপ বলা যায় যেমন আগে আপনি অনলাইন এ শপিং করতে গিয়ে পেমেন্ট এর সময় ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড অর্থাৎ এটিএম কার্ড এর মাধ্যমে পেমেন্ট করতে চাইছেন,তখন আপনাকে আপনার কার্ড নম্বর,কার্ড Expiry তারিখ,সিভিভি(CVV ),ওটিপি(OTP) এবং TRANSACTION পিন দিতে হতো। তাই তাড়াহুড়ো তে পেমেন্ট করার সময়

এতো কিছু বিবরণ দিয়ে পেমেন্ট করা খুবই জটিল ছিল। তাই ওই ওয়েবসাইট গুলি ওই সব গ্রাহকদের কার্ড এর সমস্ত তথ্য সেভ রাখতো ,যাতে পরবর্তী সময় পেমেন্ট করতে গিয়ে তাদের আবার এই জটিল কাজের সম্মুখীন না হতে হয়। তাই অনায়াসে কিছু না লিখেই পেমেন্ট হয়ে যেত। 

কিন্তু এই নিয়ম অনুযায়ী ওয়েবসাইট গুলি গ্রাহকদের কার্ড সংক্রান্ত তথ্য সেভ করে রাখতে পারবেন না। তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল সমস্ত তথ্য ৩০শে জুনের মধ্যে মুছে(delete) ফেলতে হবে।এবার থেকে নতুন নিয়ম অনুসারে আপনি চার সংখ্যার গোপন কোড এর মাধ্যমে নিজের কার্ড দিয়ে পেমেন্ট করতে পারবেন। প্রত্যেকটি কার্ড এর জন্য এই গোপন কোড আলাদা হবে। এই গোপন কোডটি কে বলা হচ্ছে টোকেন। তাই টোকেনের মাধ্যমে অনলাইন এ সহজেই গ্রাহকরা পেমেন্ট করতে পারবেন।

new debit credit card rules 

এখন ভারতে অনলাইন এ আর্থিক লেনদেনের সংখ্যা বিশাল ভাবে বেড়ে গেছে। তাই প্রত্যেকবার পেমেন্ট করার সময় যদি কার্ড সংক্রান্ত এতো তথ্য দিতে হয় সেটি সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াবে। আর যত কম সময়ে কাজ হবে ততই সুবিধা গ্রাহকদের। এই কথা মাথায় রেখেই কার্ড টোকেনাইজেশন এর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আর তা ছাড়াও এই সমস্ত ওয়েবসাইট এ গ্রাহকদের কার্ড সংক্রান্ত সব তথ্য সেভ থাকলেও সেটি একটি চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে  কারণ এর ফলে সাইবার জালিয়াতির সম্ভবনাও বৃদ্ধি পাবে। 

আরো পড়ুন :-Vivo V25 Pro Mobile Features,Price Leaked In Internet:ইন্টারনেটে লিক হলো Vivo V25Pro ফ্ল্যাগশিপ মোবাইলের দাম ,ফিচারস

কোনো হ্যাকিং সংস্থা বা হ্যাকাররা সেই ওয়েবসাইটের ডাটা হ্যাক করে আপনার কার্ড এর সমস্ত তথ্য পেয়ে যেতে পারে,যা খুবই ভয়ের ব্যাপার। সেই জন্য RBI থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল এই ওয়েবসাইট গুলিকে যাতে তারা গ্রাহকদের কার্ড সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য মুছে দেয়। এর ফলে আপনার কার্ডের তথ্য নিরাপদ থাকবে। এই বিষয়ে ব্যাঙ্ক এবং সংস্থাগুলির তরফ থেকে গ্রাহকদের জানানো শুরু হয়েছে।       

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *