Bathroom Cleaning Hacks DIY Technique In 5 Minute Crafts :বাথরুম পরিষ্কার করতে নাজেহাল ?এই কয়েকটি সহজ উপায়ে বাথরুম করে ফেলুন ঝকঝকে পরিষ্কার আজই

আমাদের বাড়ির সমস্ত ঘর যেরকম আমরা পরিষ্কার করি তার সাথে আমাদের পরিষ্কার করতে হবে আমাদের বাথরুমকেও। কারণ ঘর পরিষ্কার রাখার সাথে সাথে বাথরুম পরিষ্কার রাখাটাও খুবই জরুরি। বাথরুম অপরিষ্কার থাকলে জীবাণু,ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণে বিভিন্ন ধরণের রোগ ছড়াতে পারে এবং অপরিষ্কার বাথরুম দেখতে এবং ব্যবহার করতেও খুবই বাজে লাগে। যেখানে আমরা নিজেরা পরিষ্কার হতে যাই সেটি যদি নিজেই অপরিষ্কার হয় তাহলে কার ই বা ভালো লাগে বলুন। তাই বাথরুম পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত কিভাবে করা যায় সেটির কিছু সহজ পদ্ধতি জানানো হলো। 

বাথরুম পরিষ্কারের কথা শুনলেই একটা অনীহা কাজ করে যে কি করে এই কাজটি করবো। এই কাজটি খুবই কঠিন হবে। কিন্তু না ,কিছু উপায় অবলম্বন করে আমরা খুব সহজেই বাথরুম পরিষ্কার করে ফেলতে পারি। 

১)বাথরুম এ আয়না সবারই থাকে। সেই বাথরুমের আয়না তে সাবান,তেল,জলের ছিটে লেগে বেশিরভাগ সময়ে বাজে নোংরা দাগ হয়ে যায়। সেই দাগ আপনি অনেক সময় জলে ধুয়ে,মুছে তুলতে চেষ্টা করলেও উঠতে চায় না। সেই ক্ষেত্রে আপনি একটি স্প্রে বোতলে ভিনিগার এবং জল মিশিয়ে নিন। এবার সেই ভিনিগার মিশ্রিত জল ওই আয়নাতে স্প্রে করে দিন। তার পর  একটি নরম সুতির কাপড় নিয়ে মুছে ফেলুন। দেখবেন দাগ নিমেষে উঠে গেছে। 

২) এর পর আসা যাক বাথরুমের কমোড বা টয়লেট সিট্  পরিষ্কার বা জীবাণুমুক্ত করার কথায়। বাথরুম পরিষ্কারের মধ্যে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। টয়লেট ক্লিনার যেগুলি বাজার চলতি পাওয়া যায় সেই দিয়ে তো পরিষ্কার হয়। তবে ঘরোয়া উপায়ে করতে চাইলে একটি পাত্রে ১/৪ কাপ বেকিং সোডা,১/৪ কাপ ভিনিগার মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি কমোড ও টয়লেট সিট্ এ লাগিয়ে রেখে কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন। তার পর একটি ব্রাশ দিয়ে ঘষে ধুয়ে দিন পরিষ্কার জলে। 

DIY toilet cleaning hacks

৩)বাথরুমের সব থেকে বেশি যেটি নোংরা হয়ে থাকে সেটি হলো বাথরুমের ড্রেনের মুখ।বেশির ভাগ সময় চুল,সাবান এই সমস্ত আটকে গিয়ে ড্রেনের মুখ বন্ধ হয়ে পড়ে। আর তখনি হয় সেই জল বেরোনোর সমস্যা। এই সমস্যা দেখা দিলে একটি পাত্রে ১/৪ কাপ বেকিং সোডা,১/২ কাপ ভিনিগার,লেবুর রস এবং জল মিশিয়ে নিন। তারপর সেই মিশ্রণটি ড্রেনের মুখে ঢেলে দিন। ৫-১০মিনিট অপেক্ষা করুন। তার পর ফুটন্ত গরম জল নিয়ে ঢেলে দিন ড্রেনের মুখে। দেখবেন সব পরিষ্কার হয়ে বেরিয়ে গেছে। 

৪)বাথরুমের সিঙ্ক বা বেসিন পরিষ্কারের জন্য সাবান জল গুলি ১৫ মিনিট রেখে দিন। তার পর পুরো সিঙ্কটি ঘষে ধুয়ে দিলেই পরিষ্কার হয়ে যাবে। সিঙ্ক পরিষ্কারের সময় কলটিও একবার ঘষে পরিষ্কার করে নেবেন।

 আরো পড়ুন:-How To Clean Water Tank:বাড়ির জলের ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে চান?খুব সহজেই করে ফেলুন এই পদ্ধতিতে 

৫)বাথরুমের ড্রেনেরপর যে জিনিসটি আসে যেটা সব থেকে বেশি অপরিষ্কার হয় সেটি হলো বাথরুমের দেয়াল এবং মেঝের টাইলস। ইটা পরিষ্কারের জন্য একটি পাত্রে ১ কাপ নুন,১ কাপ বেকিং পাউডার,এবং সামান্য জল মিশিয়ে নিয়ে একটা পেস্ট তৈরী করুন। এবার সেই পেস্টটি লাগিয়ে নিন বাথরুমের দেয়াল এবং মেঝেতে। এর পর একটি ব্রাশ দিয়ে ভালো করে ঘষে দিলেই একদম দারুন ভাবে পরিষ্কার হয়ে যাবে মেঝে এবং দেয়াল। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *